টেলি-কাউন্সেলিং এর দিক নির্দেশনা

Spread the love

টেলিকাউন্সেলিং এর দিক নির্দেশনা (COVID-19 এর উদ্বেগ ডিপ্রেশনের জন্য)

কোভিড-১৯ সংকট প্রায় সকল স্তরের মানুষের মাঝে উদ্বেগ ও বিষণ্ণতা কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। আক্রান্ত ব্যক্তি থেকে শুরু করে, কোয়ারেনটাইনে/সেলফ আইসোলেশনে থাকা ব্যক্তি এমনকি ফ্রন্ট লাইনে কাজ করা ডাক্তার ও নার্সদের মাঝেও মানসিক সমস্যা দিন দিন বেড়ে চলেছে। এরই প্রেক্ষিতে সারা বিশ্বের মতো আমাদের দেশেও মনোবিজ্ঞানীরা এই মহাদুর্যোগে টেলি-কাউন্সেলিং সেবা প্রদান শুরু করেছে। কোভিড-১৯ কারণে সৃষ্ট উদ্বেগ ও বিষণ্ণতাগ্রস্ত ব্যক্তিকে কিভাবে টেলি-কাউন্সেলিং সেবা প্রদান করা যেতে পারে তার একটা গাইড লাইন আমেরিকান সাইকোলজিক্যাল এসোসিয়েশন (APA)তৈরি করেছে। আমাদের দেশে যেসকল মনোবিজ্ঞানী এই সেবা প্রদান করছেন আশা করি তারা এই দিক নির্দেশনা থেকে উপকৃত হবেন।  

সেশনের পূর্বে যে কাজগুলো করতে হবে

  • টেলি সেশনের সম্ভাব্য ঝুঁকি/ উপকারিতা সম্পর্কে ক্লাইন্টের সাথে আলোচনা করে নিতে হবে।
  • টেকনোলজিক্যাল সমস্যার উদ্ভব হতে পারে কাজেই একটা বিকল্প ব্যবস্থা রাখতে হবে।
  • সম্ভব হলে উদ্বেগ ও ডিপ্রেশনের স্ক্রিনিং স্কেল দিয়ে উদ্বেগ ও ডিপ্রেশনের মাত্রা মেপে নিতে হবে।

সেশন শুরু করবেন যেভাবে

  • আপনার ভার্চুয়াল অফিসে ক্লায়েন্টকে স্বাগত জানান এবং সাধারণ সময়ের মতো Rapport তৈরির কৌশলগুলো প্রয়োগ করুন।
  • কোভিড-১৯ এর সংকটময় পরিস্তিতিতে আপনাকে এবং আপনার বন্ধু / পরিবারকে নিরাপদ রাখতে এই টেলি সেশন চালিয়ে যাচ্ছেন বলে তাকে অবগত করুন।
  • কি কারণে ক্লায়েন্ট কাউন্সেলিং সেশনে আগ্রহী তা সংক্ষেপে বর্ণনা করতে বলুন।

উদ্বেগ বিষণ্ণতা নির্ণয় করুন

  • ক্লায়েন্টের বর্তমান উদ্বেগ ও বিষণ্ণতার লক্ষণগুলো পর্যবেক্ষণ করুন। স্ক্রিনিং টুল ব্যবহার করলে সেগুলোর আলোকে লক্ষণগুলো পুনর্বিবেচনা করুন।
  • ওপেন-এন্ডেড প্রশ্ন করে কোভিড-১৯ সম্পর্কিত ত্রুটিপূর্ণ ভাবনা ও আচরণ চিহ্নিত করুন।
    • আচরণটি ক) এড়িয়ে যাওয়া (Avoidant) সংক্রান্ত অথবা খ) অতিরিক্ত-ক্ষতি পুষিয়ে নেয়া(over-compensation) সংক্রান্ত কিনা তা চিহ্নিত করুন।
    • এড়িয়ে চলাই উদ্বেগ এবং/কিংবা বিষণ্ণতার কারণ কিনা তা যাচাই করুন।

সামাজিক সাপোর্ট এবং মানসিক চাপমূলক উদ্দীপক নির্ণয়

  • ক্লায়েন্টের স্বাস্থ্য সম্পর্কিত ইতিহাস বিশেষ করে সামাজিক, অর্থনৈতিক ও কর্মক্ষেত্রের অবস্থা পর্যালোচনা করুন।
  • ক্লায়েন্টের পারিবারিক অবস্থা পর্যালোচনা করুন
    • জীবনসঙ্গী, সন্তান ও পরিবার সম্পর্কিত তার শক্তি-সামর্থ্য (strength) ও চাপমুলক উদ্দীপক (stressor) গুলো কি কি তা চিহ্নিত করুন।
    • সম্পর্কের ক্ষেত্রে বিশেষ করে সামাজিক যোগাযোগ, অন্তরঙ্গতা, বেচে থাকা/ ভাল থাকা প্রভৃতির উপর মানসিক চাপের প্রভাব নিরূপণ করুন।
    • পারিবারিক সম্পর্কের ক্ষেত্রে সে কতটুকু সুখী/সন্তুষ্ট তা ১-১০ রেটিং করে জেনে নিন। (০=খুব খারাপ অবস্থা,১০= খুব ভাল অবস্থা)
  • সামাজিক/কৃষ্টিগত বিষয় বিবেচনা
    • আর্থসামাজিক প্রেক্ষাপট থেকে ক্লায়েন্টের দৃষ্টিভঙ্গি ও আর্থসামাজিক উপাদানগুলো কেমন তা বোঝার চেষ্টা করুন (নৃতাত্ত্বিকতা/ বাসস্থান/অর্থনৈতিক অবস্থা) এবং এই উপাদানগুলো কিভাবে কোভিড১৯ এর সাথে খাপ খাওয়াতে সমস্যা করছে তা বোঝার চেষ্টা করুন।
  • শারীরিক স্বাস্থ্য
    • ক্লায়েন্টের অন্যান্য অসুখের মেডিকেল ইতিহাস জানুন।
    • যে অসুখগুলো কোভিড১৯ এর ঝুঁকির মাত্রা বাড়িয়ে দিতে পারে তা জেনে নিন।(যেমন- ডায়াবেটিস, হার্টের সমস্যা, ফুসফুসের সমস্যা আরও জানতে ক্লিক করুন।
    • ক্লায়েন্টের কোভিড১৯ প্রতিরোধ সম্পর্কিত জ্ঞান ও তা কতটুকু প্রয়োগ করেন জেনে নিন।
      • নিয়মিত হাত ধোয় কিনা?
      • শারীরিক দূরত্ব মেনে চলেন কিনা?
      • একান্ত প্রয়োজন ছাড়া বাইরে বের হন কিনা?
      • বাইরে বের হলে মাস্ক ব্যবহার করেন কিনা?  
      • কোভিড১৯ এর লক্ষণ গুলো সম্পর্কে সচেতন কিনা? (জ্বর, শুকনা কাশি, শ্বাসকষ্ট, পেশী/মাথা ব্যাথা এবং দুর্বল লাগা। যদি ক্লায়েন্ট এগুলো সম্পর্কে সচেতন না থাকে তবে তাকে এ সম্পর্কে অবগত করুন।)

কেস ফর্মুলেশন

  • অন্যান্য বিষয়ের সাথে ক্লায়েন্টের ব্যাক্তিগত, পারিবারিক, কর্মক্ষেত্র, অর্থনৈতিক এবং অন্যান্য মানসিক চাপমুলক উদ্দীপক(stressor)মূল্যায়ন পূর্বক ক্লায়েন্টের সমস্যা সম্পর্কিত একটি সুস্পষ্ট ধারনা নিয়ে কিছু প্রকল্প তৈরি করুন।

মোটিভেশনাল সাক্ষাৎকার

  • অনুমতি নিয়ে চিকিৎসা পরিকল্পনা নিয়ে আলোচনা করুন।
  • ওপেন- এন্ডেড প্রশ্ন করে তার জীবনে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ কি, তা চিহ্নিত করতে তাকে সাহায্য করুন।
  • ওপেন- এন্ডেড প্রশ্নের মাধ্যমে তার জীবনের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় অর্জনে কিভাবে এই চিকিৎসা (উদ্বেগ/ বিষণ্ণতা) সহায়তা করবে তা জিজ্ঞেস করুন।
  • ওপেন- এন্ডেড প্রশ্নের মাধ্যমে ক্লায়েন্টের মানসিক চাপ বৃদ্ধির ক্ষতি ও তার সময়ের চরম মূল্য দেওয়াকে, কিভাবে এই চিকিৎসা (উদ্বেগ/ বিষণ্ণতা) সহায়তা করবে তা জিজ্ঞেস করুন।
  • ওপেন- এন্ডেড প্রশ্নের মাধ্যমে এই সংকটময় পরিস্থিতি সম্পর্কিত উদ্বেগ/ বিষণ্ণতা চিকিৎসায় স্বতঃস্ফূর্তভাবে অংশ নেয়ার কথা কিংবা স্বদিচ্ছার কথা জেনে নিন।
  • যদি ক্লায়েন্ট এই চিকিৎসা নিতে আগ্রহী হয় কিংবা প্রস্তুতি প্রকাশ করে তবে, চিকিৎসা পরিকল্পনা শুরু করুন।
  • যদি ক্লায়েন্ট এই মনোবৈজ্ঞানিক চিকিৎসা নিতে প্রস্তুত না থাকে তবে, তার সহমর্মিতা প্রদর্শন করে তার যৌক্তিকতা খুজে বের করুন। চিকিৎসা একটু বিলম্ব করুন, অথবা বিকল্প কিছুর সুপারিশ করুন, অথবা অন্যান্য সহকর্মীর সহযোগিতা নিন।

চিকিৎসা পরিকল্পনা

  • চিকিৎসা পরিকল্পনার সুপারিশ প্রস্তাব করুন- ভার্চুয়াল বনাম ইন-পারসন ফরমেট, সপ্তাহে কতবার কতক্ষণ ধরে চলবে, কোন বিষয় ফোকাস করবেন ইত্যাদি।
  • সম্ভব হলে এক্ষেত্রে ক্লায়েন্টের পছন্দকে অগ্রাধিকার দিন।
  • ক্লায়েন্টের সন্তুষ্টি পর্যালোচনা করুন।
  • ক্লায়েন্টের কোন প্রশ্ন থাকলে জেনে নিন।
  • ক্লায়েন্ট চিকিৎসা চালিয়ে যেতে চাইলে পরবর্তী সেশনের সময় ঠিক করে সেশন সমাপ্ত করুন।  

এই গাইড লাইনটি আর্নল্ড এর “হলিস্টিক সিবিটি” মডেল অব বায়োসাইকোলজিক্যাল এন্ড ইনটেগরেটেড কেয়ার এবং APA অনুযায়ী তৈরি করা। তবে বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে কিছুটা পরিমার্জিত।      

লেখক – মোঃশাহিনুর রহমান, সহকারি অধ্যাপক, মনোবিজ্ঞান বিভাগ, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.